জোকস (১৬তম পর্ব)

সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে কাউন্সিলর পদপ্রার্থী এক নেতা জ্বালাময় ভাষন দিয়ে সবাইকে আহবান জানালেন তাকে তার মোরগ মার্কায় ভোট দিয়ে নির্বাচিত করতে। বক্তৃতা শেষে তিনি বললেন-
– কারও কিছু প্রশ্ন আছে?
– আছে স্যার। একজন হাত তুলল।
– কি প্রশ্ন?
– আপনার বিপক্ষে যিনি দাড়িয়েছেন তার মার্কাটা কি?

 

শাড়ির দোকানে ঢুকে এক মহিলা বললেন-
– ঐ শো কেসে ঝুলানো শাড়িটা নামানতো একটু।
সেলস ম্যান শাড়ি নামালো। মহিলা তখন বললেন… ‘ যাক ধন্যবাদ ঐ শাড়ির বিশ্রি ডিজাইনটা দেখে আমার গা গুলাচ্ছিল!’

 

ভিক্ষুক- স্যার কিছু দিন না খেয়ে আছি…দুদিন
দয়ালু লোক- এই নাও একশ টাকা। তা বাপু তোমার এ হাল হল কি করে?
ভিক্ষুক- আপনার মত দান খয়রাত করতে করতে স্যার!

 

 

পঁচিশতম বিয়ে বার্ষিকীতে স্বামী-স্ত্রী
স্বামী- সত্যি তোমাকে সেই পঁচিশ বছর আগের মতই লাগছে কোন পরিবর্তন নেই!
স্ত্রী- তাতো লাগবেই সেই পচিশ বছরে যে একটাই শাড়ি দিয়েছিলে সেটাইতো পড়ে
আছি …

 

– আচ্ছা এই পাড়ায় কোন নেড়ি কুকুর নেইতো যে রাতভর চেচায়?
বাড়ি ভাড়া নিতে আসা এক লোক জনতে চায়।
– আরে না চেচিয়ে পাড়া মাৎ করবে এরকম কুকুর এ পাড়ায় নেই
– যাক তাহলে এ পাড়ায় বাড়ি নেওয়া যায়। আমার কুকুরটাই না হয় রাতভর চেঁচাবে… সমস্যা কি? ।